একজন পড়ুয়া নিয়ে চলছে স্কুল, প্রকাশ্যে সরকারি স্কুলের দুর্দশা

বিবিপি নিউজ: ফের একবার প্রকাশ্যে এসেছে সরকারি স্কুলের করুন দুর্দশা। শিক্ষকদের অবহেলা, শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতির খবর আপনারা নিশ্চয়ই অনেক পড়েছেন। কিন্তু এই গল্প ভিন্ন। এটি একটি উদাহরণ। স্কুলে না যাওয়ার এবং পড়াশোনায় মন না দেওয়ার জন্য রয়েছে এক মিলিয়ন অজুহাত। এটি এমন একটি স্কুলের গল্প যেখানে মাত্র একজন ছাত্র এবং একজন শিক্ষক।

এএনআই-এর প্রতিবেদন অনুসারে, এমন-ই এক স্কুল রয়েছে মহারাষ্ট্রের ওয়াশিম জেলা থেকে 22 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত গণেশপুর গ্রামের একটি জেলা পরিষদ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। গত দুই বছরে মাত্র একজন পড়ুয়া। আর শিক্ষকও মাত্র একজন।
ওই শিক্ষকের নাম কিশোর মানকর। মানকর আরও জানিয়েছেন যে গণেশপুরের জনসংখ্যা মাত্র 150 জন।

কিশোর মানকার জানান, গত দুই বছর ধরে তিনি এই স্কুলে শিক্ষকতা করছেন। তিনি বলেন “স্কুলে আমিই একমাত্র শিক্ষক,”। একজন ছাত্রকে পড়াতে দুই বছর ধরে বাইকে প্রতিদিন হাজির হচ্ছেন। ওই শিক্ষক জানিয়েছে, সরকারি‌ নিয়ম মেনে “সকাল 10:30 থেকে দুপুর 12 টা পর্যন্ত, জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া সহ সকল নিয়ম-কানুন মেনে চলা হয়। এছাড়াও ওই পড়ুয়ার জন্য সকল বিষয় পড়ানো হয়।