১০ জনকে মেরে অবশেষে গুলিতে নিহত মানুষখেকো বাঘ

বিবিপি নিউজ: শেষ পর্যন্ত শ্যুট আউটে নিহত হল বিহারের সেই বাঘ। মৃত্যুর আগে ১০ জন তাঁর থাবায় নিহত হয়েছে। অবশেষে বনদফতরের আধিকারিকের বাঘটিকে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ জারি করেছিল।

জানা গেছে, গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে বাঘটি বিহারের পশ্চিম চম্পারণ জেলার বাল্মিকী ব্যাঘ্র সংরক্ষণ কেন্দ্রের আশেপাশের এলাকায় তাণ্ডব চালাচ্ছিল। গত শুক্রবার, আখ ক্ষেতে কর্মরত বছর পয়ত্রিশের এক ব্যক্তিকে টেনে নিয়ে বাঘটি। কিছু দূরে ওই যুবকের ঘাড় ভাঙা মৃতদেহ উদ্ধার হয়। অথচ, ওই এলাকায় এক সঙ্গে আরও অনেকে ক্ষেতের কাজ করছিলেন। কেউই টের পাননি। তার পরেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বাল্মীকি জাতীয় উদ্যানের আশেপাশের গ্রামের বাসিন্দারা। তাঁরা বন দফতরের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে পথ অবরোধ করেন।আন্দোলনকারীদের হাতে হেনস্থার শিকার হন এক বনকর্তা। ভাঙচুর করা হয় বন বিভাগের একটি গাড়িতেও। তার পরেই তড়িঘড়ি বাঘটিকে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ জারি হয়। মানুষখেকোর গতিবিধি বুঝতে ওড়ানো হয় ড্রোন।

বার বারই বন দফতরের পাতা ফাঁদ এড়িয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে মানুষখেকোটি। এরই মধ্যে শনিবার বাঘটি আবার হামলা চালায়। কিন্তু আজ আর কোনও ভুল করেননি শিকারিরা। নির্ভুল লক্ষ্যে গুলি চালিয়ে মানুষখেকো বাঘটিকে খতম করেন তাঁরা।
বন দফতর সূত্রে খবর, বাঘটির বয়স সাড়ে তিন বছর। শুধু শিশু বা মহিলা নয়, বাঘটি সব বয়সের মানুষের উপরই হামলা চালিয়ে এ পর্যন্ত ১০ জনকে মেরে ফেলেছে।